চাহিদা নেই : ফকিরহাট থেকে ফিরছে ১০ হাজারেরও বেশী ভিজিএফ কার্ড

আগস্ট ১০, ২০১৮ : ৭:১৭ অপরাহ্ণ || দৈনিক বাস্তবতা

print
ফকিরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার ৮ ইউনিয়নে চাহিদা না থাকায় এবার ১০৭১৯টি ভিজিএফ কার্ড ফেরৎ পাঠানো হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট সুত্র জানায়, পবিত্র ঈদ-উল আযহা ২০১৮ উপলক্ষে বন্যাক্রান্ত/অন্যান্য দুর্যোগাক্রান্ত/দুঃস্থ/অতিদরিদ্র ব্যক্তি পরিবারকে ভিজিএফ খাদ্যশস্য সহায়তার জন্য ফকিরহাট উপজেলায় মোট ২৯২২০ টি কার্ডের জন্য প্রতি ২০ কেজি হারে মোট ৫৮৪.৪০০ মে. টন (চাল) বরাদ্দ পাওয়া যায়। কিন্তু ৮টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানরা লিখিত ভাবে জানান যে, কার্ডের সমপরিমান হতদরিদ্র পরিবার তাদের ইউনিয়নে না থাকায় প্রকৃত দুঃস্থদের মাঝে সুষ্ঠ বিতরনের স্বার্থে বরাদ্দকৃত সকল কার্ড বিতরন হচ্ছে না। যে কারনে বরাদ্দকৃত অনেক কার্ড ফেরত দেয়া হচ্ছে। এরমধ্যে বেতাগা থেকে ১৮৫১টি কার্ড ফেরৎ যাচ্ছে, লখপুর থেকে ২৩২৯টি, পিলজংগ থেকে ৫০০টি, ফকিরহাট থেকে ২৩১৮টি, বাহিরদিয়া-মানসা থেকে ১০৫৭টি, নলধা-মৌভোগ ১০০০টি, মূলঘর ১১৬৪টি, শুভদিয়া ইউনিয়ন থেকে ৫০০টি কার্ড সহ মোট উপজেলা থেকে ১০,৭১৯ টি কার্ড ফেরত যাচ্ছে।

জানা গেছে, ৮টি ইউনিয়নে হতদরিদ্র পরিবারের সংখ্যা কম থাকায় এবং সুষ্ট বিতরনের লক্ষে এবার ১৮,৫০১টি কার্ডে ৩৭০.০২০ মে. টন চাল খাদ্য শস্য (চাল) রাখা হচ্ছে বাকী ১০৭১৯ টি কার্ডের ২১৪.৩৮০ মে. টন খাদ্য শস্য (চাল) ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সূত্র জানায়, এরমধ্যে বেতাগা ইউনিয়নে দেয়া হবে মোট কার্ড ১০০০টি, চালের পরিমান ২০.০০ মে. টন, লখপুর ইউনিয়নে ২০০০টি কার্ড, চালের পরিমান ৪০.০০০ মে. টন, পিলজংগ ইউনিয়নে মোট কার্ড ৩৫২৪ টি, চালের পরিমান ৭০.৪৮০ মে. টন, ফকিরহাট ইউনিয়নে মোট কার্ড ৩০০০ টি, চালের পরিমান ৬০.০০০ মে. টন, বাহিরদিয়া-মানসা ইউনিয়নে মোট কার্ড ২০৫৫ টি, চালের পরিমান ৪১.১০০ মে. টন, নলধা-মৌভোগ ইউনিয়নে মোট কার্ড ২৫১২ টি, চালের পরিমান ৫০.২৪০ মে. টন, মূলঘর ইউনিয়নে মোট কার্ড ২০০০ টি, চালের পরিমান ৪০.০০০ মে. টন, শুভদিয়া ইউনিয়নে মোট কার্ড ২৪১০ টি, চালের পরিমান ৪৮.২০০ মে. টন মোট ১৮,৫০১ টি কার্ড অর্থাৎ ৩৭০.০২০ মে. টন চাল বিতরণ করা হবে। গত ৯ আগষ্ট উপজেলা সভায় এই সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে নির্বাহী অফিসার মোছা. শাহানাজ পারভীন জানান, সরকার কর্তৃক গৃহীত সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম, সরকারের অন্যান্য উন্নয়ন কার্যক্রম এবং কর্মসংস্থার সৃষ্টির মাধ্যমে উপজেলা দুঃস্থ ও অসহায় জনগনের জীবন মানের ব্যপক উন্নয়ন ঘটেছে এবং দারিদ্র্যের হার উল্লেখযোগ্য ভাবে হ্রাস পেয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় ফকিরহাট উপজেলার সকল ইউনিয়নে ভিজিএফ কার্ডধারীদের মধ্যে অনেকের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি ঘটে এবং সামাজিক মর্যাদার বৃদ্ধি পাওয়ায় তারা ভিজিএফ কার্ডের খাদ্য শষ্য গ্রহন করতে অনেক আসেনা। এমতবস্থায় গত ঈদুল ফিতরে বেতাগা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান স্বপন দাশ তিনি চাহিদার অতিরিক্ত ভিজিএফ কার্ড ফেরত দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন। এরপর ঈদ উল আযহার পূর্বে এই উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানবৃন্দ অতিরিক্ত কার্ড ফেরৎ প্রদান করায় অত্র উপজেলার জনপ্রতিনিধিদের স্বচ্ছতা ও জাবাবদিহিতার প্রতিফলন ঘটেছে। তিনি আরও জানান যে, ভিজিএফ কার্ড বিতরণের কার্যাবলী যথাযথভাবে অনুমান করে সকল ইউনিয়নে এ কার্যক্রম পরিচালিত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on Twitter0Share on LinkedIn0Share on Reddit0



Daily Bastobota | bangla news
সম্পাদক : মোঃ জান্নাতুল বাকি
প্রকাশক : আব্দুল মান্নান তালুকদার
মোক্তার বার ভবন (২য় তলা), নিউ মার্কেট রোড, বাগেরহাট।
টেলিফোন : ০৪৬৮-৬৪৭১১
ই-মেইল: dbastobota@gmail.com